শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

জবি প্রতিনিধি :

প্রকাশিত: ১৩:২৪, ১৮ মে ২০২৪

জবির দিনাজপুর জেলা ছাত্র কল্যাণ সমিতি’র নেতৃত্বে আসিফ-সেলিম

জবির দিনাজপুর জেলা ছাত্র কল্যাণ সমিতি’র নেতৃত্বে আসিফ-সেলিম
সংগৃহীত

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দিনাজপুর জেলার অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীদের একমাত্র সংগঠন "দিনাজপুর জেলা ছাত্র কল্যাণ সমিতি। এতে আগামী ১ বছরের জন্য কমিটিতে সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের ১৪ তম ব্যাচের শিক্ষার্থী মোঃ মোর্শেদ হাসান আসিফ, ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ সেলিম রানা। 

শুক্রবার (১৭ মে) জবি'র আগামী ১ বছরের জন্য আংশিক কার্যনির্বাহী কমিটি ঘোষণা করেছে সংগঠনের সদস্য ও উপদেষ্টা পরিষদের উপস্থিতিতে নির্বাচনের মাধ্যমে এই কমিটি গঠন করা হয়।

জানা যায়, এই কমিটিতে সহ সভাপতি আতিকুর রহমান সোহাগ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তাসলিমুল হাসান রাশাদ ও সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ কামরুজ্জামান জিনান। দীর্ঘ ৩ বছর পর দিনাজপুর জেলা ছাত্র কল্যাণ সমিতি, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের এই কার্যনির্বাহী কমিটি গঠিত হলো। 

এ বিষয়ে নব নির্বাচিত সভাপতি মোঃ মোর্শেদ হাসান আসিফ জানান, দিনাজপুর জেলা ছাত্র কল্যাণ সমিতি, জবি আমাদের প্রাণের সংগঠন। আমরা দিনাজপুর জেলার প্রায় ৪০০ শিক্ষার্থী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত আছি। আমরা সবাই এই সংগঠনে একত্রিত হয়ে সকল শিক্ষার্থীর যে কোন যৌক্তিক প্রয়োজনে এবং সমস্যায় পাশে থাকি। এই সংগঠনে কাজ ই হলো ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য শিক্ষার্থী বান্ধব সেবা প্রদান করা। আমরা চাই জেলা কল্যাণ সমিতির গতানুগতিক কাজের বাইরেও সৃজনশীল কিছু কাজ করতে এটা হতে পারে বিভিন্ন ক্যারিয়ার ওয়ার্কশপ, রিসার্চ ফেয়ার, বিতর্ক প্রতিযোগিতা, রচনা প্রতিযোগিতা, আইডিয়া শেয়ার সেমিনার ইত্যাদি। সর্বোপরি উপদেষ্টা পরিষদ, এ্যালামনাই এবং সকলের ঐকান্তিক সহযোগিতায় আমাদের এই সংগঠনে সকল সদস্যদের যেকোন পরিস্থিতিতে পাশে থাকবো ইনশাআল্লাহ।

এ বিষয়ে নব-নির্বাচিত সাধারন সম্পাদক মোঃ সেলিম রানা বলেন ,জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে সবার প্রিয় সংগঠন,  জাগো বাহে, কুনঠে সবাই এর সংগঠন,  উত্তরাঞ্চলের সবচেয়ে বৃহৎ সংগঠন দিনাজপুর জেলা ছাত্রকল্যান সমিতি,  জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার পক্ষ থেকে সবাইকে জানাই শুভেচ্ছা। দিনাজপুর আম-লিচুর দেশ, চাল-চিড়ার দেশ,  রামসাগর-কান্তজিউ মন্দিরের দেশ। ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিতে ভরা জেলা মোদের দিনাজপুর।  প্রাচুর্যে ভরা এরকম একটা জেলার গুরুদায়িত্ব পালন করতে পেরে আমি খুবই আনন্দিত । সবার কাছে আমি দোয়াপ্রার্থী। সবাই যেভাবে আমাকে সহযোগিতা করেছেন আমি চাই আগামীতেও সেটি অব্যাহত থাকুক। সবার সহযোগিতা, মানবিক মূল্যবোধ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় এগিয়ে যাবে আমাদের প্রিয় এই সংগঠন।

সংগঠনের উপদেষ্টারা জানান, এই সংগঠনে গতিশীলতা বৃদ্ধির জন্য আগামী এক বছর এই কার্যনির্বাহী কমিটি শিক্ষার্থীদের জন্য কাজ করে যাবে।

আ/ম

সম্পর্কিত বিষয়:

জনপ্রিয়