শনিবার ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

নীলফামারী প্রতিনিধি :

প্রকাশিত: ১৫:০৯, ১৫ মার্চ ২০২৪

সৈয়দপুরের পৌর মেয়র রাফিকার আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল

সৈয়দপুরের পৌর মেয়র রাফিকার আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল
সৈয়দপুর পৌর মেয়র রাফিকা আকতার জাহান বেবী

নীলফামারীর সৈয়দপুর পৌর মেয়র রাফিকা আকতার জাহান বেবীর একটি আপত্তিকর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়েছে। 

বুধবার (১৩মার্চ) 'ভাইরাল ভিডিও' নামের একটি ফেসবুক আইডি থেকে মোবাইলে ধারণকৃত ভিডিওটি ভাইরাল হয়। এতে ফেসবুক মেসেঞ্জার ও ইমোর ভিডিও কলে তাকে সম্পূর্ণ নগ্ন ও আপত্তিকর অঙ্গভঙ্গি করতে দেখা গেছে।

এর আগে ২০২৩ সালে জুলাই মাসে ‘জাওয়াদ নির্ঝর’ নামের আরেকটি ফেসবুক আইডি থেকে মেয়র রাফিকা জাহান বেবীর একটি আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল হয়। ওই সময় সংবাদ সম্মেলন করে ভিডিওটিকে ‘সুপার এডিট’ বলে দাবি করেছিলেন মেয়র। 

এদিকে মেয়রের আপত্তিকর ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার সর্বত্র তীব্র সমালোচনার ঝড় বইছে। অনেকেই নৈতিক স্খলন হওয়ায় তার পদত্যাগ ও শাস্তি দাবি করেছেন। 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সৈয়দপুর পৌরসভার কয়েকজন কাউন্সিলর গণমাধ্যমকে বলেন, মেয়রের আপত্তিকর ভিডিওর বিষয়টি নিয়ে এলাকা জুড়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে। ভিডিওটি তারাও দেখেছেন। এটা তাদের এবং পৌরবাসীর জন্য লজ্জার বিষয়। একজন জনপ্রতিনিধির এমন আচরণ পৌরবাসীরা প্রত্যাশা করে না।

মেয়র রাফিকা আকতারের ননদ আঞ্জুয়ারা বলেন, আমার ভাই আকতার হোসেন বাদল বেঁচে থাকাকালীন সময়ই আমার বিমাতা ভাই বুলুর সঙ্গে তার পরকীয়া সম্পর্ক ছিল। তার কু-কৃত্তির কথা অনেক আগে থেকেই জানি। লোকলজ্জার ভয়ে আমরা কেউ কিছু বলি না। কিন্তু ফেসবুকে প্রকাশের পর এখন আমরা লোকজনকে মুখ দেখাতে পারছি না।

এ বিষয়ে জানতে মেয়র রাফিকা আকতার জাহান বেবীর পৌরসভার কার্যালয় ও বাসায় গেলে কথা বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন তিনি। এমনকি তাকে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি। 

প্রসঙ্গত, তার স্বামী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক মেয়র আখতার হোসেন বাদলের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর সরাসরি মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন রাফিকা জাহান বেবি। এরপর পঞ্চম ধাপের পৌর নির্বাচনে ২০২১ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি আওয়ামী লীগের এ নতুন মুখ প্রথমবার নির্বাচনে এসেই গৃহিনী থেকে মেয়র হয়েছেন৷

সম্পর্কিত বিষয়:

জনপ্রিয়